বর্তমান সময়ে বিশ্বের সাথে কাঁধে কাধঁ মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এবং বাংলাদেশে ব্যপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে শিক্ষিতর হার। প্রকৃত অর্থে শিক্ষা ছাড়া কোন দেশ ও জাতির উন্নয়ন সম্ভব নয়। একটি জাতিকে বিশ্ব দরবারের প্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য স্বশিক্ষার একান্ত প্রয়োজন রয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে ইউরোপীয় ইউনিয়ন বাংলাদেশের শিক্ষাখাত সংস্কার করার জন্য ৪২৮ কোটি টাকার সহায়তা দিয়েছে।
বাংলাদেশের শিক্ষাখাত সংস্কার কার্যক্রমের সহায়তার অংশ হিসেবে ৪২৮ কোটি টাকা (৪৬.১২ মিলিয়ন ইউরো) দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। মঙ্গলবার ঢাকার ইইউ অফিস থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, ইউরোপীয় ইউনিয়নের ’হিউম্যান ক্যাপিটাল ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম-২০২১’ এর কর্মসূচির আওতায় এই অর্থ সহায়তা দেওয়া হয়েছে। এ অর্থ দিয়ে বাংলাদেশের শিক্ষাখাত শক্তিশালী ও দক্ষতা উন্নয়ন, বিশেষ করে প্রাথমিক ও কারিগরি শিক্ষায় ব্যয় করা হবে। টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে মানব উন্নয়ন, দারিদ্র ও অসমতা বিমোচনে বাংলাদেশ সরকারের অঙ্গীকার বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে ইইউ এই সহায়তা দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশের শিক্ষার খাত উন্নয়নের জন্য সরকারী ভাবে শিক্ষার্থীদের নানা ধরনের সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছে দেশের সরকার। এরই ধারবাহিকতায় এগিয়ে যাচ্ছে বাংহলাদেশ। এমনকি শিক্ষা খাতে অসহায় ও দরিদ্র ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বৃত্তি প্রদান করছে। মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বিনামূল্যে বই বিতরন করছে।