বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে এক অস্থিতিশীল পরিবেশ বিরাজ করছে এবং শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানকে বয়কট করার আহ্বান জানিয়েছে চলচ্চিত্রের ১৮টি সংগঠন। এছাড়াও এই দুজনের বিরুদ্ধে অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী সহ চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজকরাও নানা অভিযোগ তুলেছে। এবার এই তালিকায় যুক্ত হলেন চলচ্চিত্র নির্মাতা মালেক আফসারী।
চিত্রনায়ক জায়েদ খানকে চলচ্চিত্রের দুর্গন্ধ বলে মন্তব্য করেছেন মাস্টার মেকার খ্যাত নির্মাতা মালেক আফসারী। মঙ্গলবার এসব কথা বলেন তিনি।তিনি বলেন, চিত্রনায়ক জায়েদ খান চলচ্চিত্রের দুর্গন্ধ। তার পতন চাই। এই চলচ্চিত্র শিল্পকে ধ্বংস করে দিচ্ছেন এই জায়েদ। মালেক আফসারী বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করছি। আমাদের কোনো অনুদান লাগবে না, কোনো প্রণোদনা লাগবে না। শুধু এই জায়েদ খানকে এফডিসি থেকে সরিয়ে দিন। প্র/শা/স/নের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এ নির্মাতা বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আপনারা এই জায়েদ খানকে সহযোগিতা করবেন না। এই জায়েদ খান চলচ্চিত্রকে দুইভাগে বিভক্ত করেছেন। দয়া করে তাকে আপনারা কোনো ধরনের সুযোগ দিবেন না।

জায়েদ খানকে উদ্দেশ্য করে মালেক আফসারী বলেন, জায়েদ তুই একলা চালাক দুনিয়ায়, সবাইকে নিয়ে গেইম খেলবি। এই জায়েদ খান প্র/শা/স/নে/র ভয় দেখিয়ে শিল্পীদের বাসায় থাকতে দেয়নি। দিনের পর দিন ভুক্তভোগী শিল্পীরা অন্যদের বাসায় ঘুমিয়েছে। এসকল তার অপকর্মের কারণে আজ চলচ্চিত্র শিল্পের রেশারেশি অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

এমনিতেই চলচ্চিত্র অঙ্গন এক সংকটময় পরিবেশের মধ্যে দিয়ে অতিবাহিত হচ্ছে। এবং করোনার তান্ডবে বিনোদন অঙ্গনের সকল কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। এরই মধ্যে আবার শিল্পী সমিতির বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে। তবে শিল্পী সমিতির এই বিরোধ মেটানোর জন্য বিশেষ ভাবে কাজ করছে সিনিয়র সকল অভিনেতা-অভিনেত্রী সহ বিনোদন অঙ্গনের অনেকেই।