দেশে একের পর এক /ধ/র্ষ/ণে/র প্রতিবাদের সাধারন মানুষের পাশাপাশি দলবেধে এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছে তারকারাও। যেখানে সম্প্রতি চঞ্চল চৌধুরী, মেহের আফরোজ শাওন, জয়া আহসান, মেহজাবিন, অপূর্বসহ অনেক তারকারা সামাজিক যোগাযোগে মাধ্যমে এর প্রতিবাদ জানিয়েছে। আর এরই জের ধরে এবার এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে মুখ খুলেছেন বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা শাকিব খান। তিনি দল, মত ও ক্ষমতা সবকিছুর ঊর্ধ্বে গিয়ে /ধ/র্ষ/ণ/কা/রী/দে/র দ্রুত বিচার নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) শাকিব খান তার ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে এই দাবি জানান।

শাকিব লেখেন, ‌’সবকিছুর প্রথমে নারীর পরিচয় তিনি একজন মানুষ। সমাজ এখনও অনেকক্ষেত্রে নারীকে মানুষ হিসেবে গণ্য করতে চায় না! তারপরই একজন নারী কারও মা, কারও বোন। এই কারও মা, বোন, মানুষ সত্ত্বা নারীকে মানুষ হিসেবেই মানুষের শ্রদ্ধা করা উচিত, গণ্য করা উচিত, মান্য করা উচিত—এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’

’একজন নারী একজন মা, পৃথিবীর কোনো কিছু মায়ের সঙ্গে তুলনা হয় না। যারা একজন মা আর বোনকে অন্য চোখে দেখে, //ধ/র্ষ/ণে/র/ মানসিকতা মনের মধ্যে লালন করে বেড়ায়— তার কোনো পরিচয় হয় না। সে পুরুষ নাকি, তার চেয়ে বড় তিনি কখনোই মানুষ নন। তার একমাত্র পরিচয় সে /ধ/র্ষ/ক/।’

’আমি সচেতন মানুষ হিসেবে আমার দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে এই ধরনের /ঘৃণিত অপরাধের বিরুদ্ধে আমি আমার কাজ করে যাচ্ছি, ভবিষ্যতেও করে যাব। এমনকি আমার শুটিং চলতি ছবি "নবাব এলএলবি" সিনেমাতেও /ধ/র্ষ/ণে/র/ মতো জঘন্য বিষয়টিকে প্লট হিসেবে বেছে নিয়েছি।’
’দেশে মহামারির চেয়েও ভ/য়ং/কর/ভা/বে ছড়িয়ে পড়েছে /ধ/র্ষ/ণে/র/ মতো জ/ঘ/ন্যতম অপরাধ। এর কারণ এসব মানুষরূপী নর/প/শু/দের নৈতিক অবক্ষয়, মাদকের বিস্তার, /ধ/র্ষ/ণ/সংশ্লিষ্ট আইনের সীমাবদ্ধতা, বিচার প্রক্রিয়ায় প্রতিবন্ধকতা এবং বিচারের দীর্ঘসূত্রতা।’

’দল, মত, ক্ষমতা সবকিছুর ঊর্ধ্বে গিয়ে /ধ/র্ষ/ণ/কা/রীদের দ্রুত বিচার নিশ্চিত চাই। দৃ/ষ্টা/ন্তমূ/লক শাস্তি চাই।’

প্রসঙ্গত, ১৯৯৯ সালে ’অনন্ত ভালবাসা’ সিনেমায় অভিনয়ের মধ্যদিয়ে বাংলা সিনেমার জগতে পা রাখেন এই অভিনেতা। বাল যেতে পারে, এ সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যদিয়ে নিজের জায়গাকে পাকাপুক্ত করতে সক্ষম হন শাকিব খান। বর্তমানে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন তিনি।