গোটা পৃথিবী জুড়ে অসংখ্য দেশ রয়েছে। এই সকল দেশে নিরাপদ যোগ্য বাসবাসের স্থান এবং সৌন্দর্যপূর্ন অনেক শহর আছে। সম্প্রতি ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট বিশ্বের বেশ কিছু দেশের বিভিন্ন বিষয়ের উপর পর্যবেক্ষন করে বিশ্বে সবচেয়ে নিরাপদ শহরের তালিকা প্রকাশ করেছে। এই বিষয়ে বিস্তারিত এলো প্রকাশ্যে।
ভ্রমণের জন্য নিরাপত্তাকে প্রধান্য দিয়ে থাকেন পর্যটকরা। তবে মহামারির কালে নিরাপত্তা সম্পর্কিত পুরোনো ধারণায় নতুন নতুন শর্ত যোগ হয়েছে। সিএনএন জানায়, বরাবরের মতো বেশ কিছু বিষয় বিবেচনা করে ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট তৈরি করেছে সেফ সিটিজ ইনবক্স (এসসিআই)। যেখানে ৬০টি আন্তর্জাতিক গন্তব্যকে ডিজিটাল নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য নিরপত্তা, অবকাঠামো, ব্যক্তিগত নিরাপত্তাসহ নতুন ক্যাটাগরি পরিবেশগত নিরাপত্তার দিক থেকে পরীক্ষা করা হয়। এবার সবচেয়ে নিরাপদ শহর নির্বাচিত হয়েছে ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেন। এরপর আছে ইউরোপের আরও কিছু অঞ্চল। তবে তালিকার প্রথম ১০ এর মধ্যে আছে এশিয়ার জনপ্রিয় তিন গন্তব্য সিঙ্গাপুর, টোকিও ও হংকং।

এসসিআই প্রতিবেদনে ৮২ দশমিক ৪ পয়েন্ট নিয়ে কোপেনহেগেনের নাম শীর্ষে উঠে এসেছে। ৮২ দশমিক ২ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে আছে কানাডার টরন্টো। ৮০ দশমিক ৭ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে সিঙ্গাপুর। এ ছাড়া, অস্ট্রেলিয়ার সিডনি চতুর্থ স্থানে এবং জাপানের টোকিও পঞ্চম স্থানে আছে। ষষ্ঠ ও সপ্তম স্থানে আছে যথাক্রমে নেদারল্যান্ডসের আমস্টারডাম ও নিউজিল্যান্ডের ওয়েলিংটন। এরপর আছে হংকং ও অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন, তারা যৌথভাবে অষ্টম স্থান। দশম স্থানে আছে সুইডেনের স্টকহোম।
যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে নিরাপদ শহর হিসেবে তালিকার ১১তম স্থানে অবস্থান করছে নিউইয়র্ক। স্পেনের বার্সেলোনার অবস্থানও ১১ নম্বরে। যুক্তরাজ্যের লন্ডন ১৫তম স্থানে আছে। চমকই বলা যায়, নাইজেরিয়ার লাগোস, মিসরের কায়রো, ভেনেজুয়েলার কারাকাস, পাকিস্তানের করাচি ও মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনও তালিকার শেষের দিকে স্থান করে নিয়েছে।

বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে কিছু সংস্থা রয়েছে। এই সংস্থা গুলো বিশ্বের বিভিন্ন বিষয় এর উপর নানা ধরনের জরিপ করে থাকে এবং বিশ্ব সেরা বিষয় গুলো বিশ্ববাসীর নিকট তুলে ধরে। এতে করে গোটা বিশ্ববাসী অনেক অজানাকে খুব সহজেই জানতে সক্ষম হয়। এবার প্রকাশ্যে এসেছে বিশ্ব সেরা কিছু নিরাপধ শহরের নাম।