বর্তমান সময়ে বিশ্বের উন্নত দেশ গুলোতে প্রায় ১ কোটির বেশী বাংলাদেশী বসবাস করছ। এবং তারা বিভিন্ন পেশায় কর্মরত। অবশ্যে প্রতিবছরেই অসংখ্য বাংলাদেশী নিজেদের ভাগ্যের পরিবর্তনের জন্য বিশ্বের উন্নত দেশ গুলোতে পাড়ি জমাচ্ছে। সরকারী ভাবেও অনেকেই যাচ্ছে। সম্প্রতি সার্বিয়া বাংলাদেশকে এক সুসংবাদ দিয়েছে। তারা বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে।
বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে সার্বিয়া। বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) রাজধানী বেলগ্রেডে দেশটির শ্রম, কর্মসংস্থান, প্রবীণ এবং সামাজিক বিষয়ক মন্ত্রী ডা. দারিজা কিসিচ তেপাভেভিচের সঙ্গে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. শামীম আহসান সাক্ষাৎ করলে তিনি এই আগ্রহ প্রকাশ করেন। এ সময় ঢাকা ও বেলগ্রেডের মধ্যে ঐতিহাসিক বন্ধন এবং বিশেষ করে শ্রম ও কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে শক্তিশালী করার বিপুল সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করে উভয়ে এ সংক্রান্ত একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের বিষয়ে আলোচনা করেন। বৈঠকে রাষ্ট্রদূতকে বৈধভাবে বাংলাদেশ থেকে দক্ষ ও আধা দক্ষ কর্মী নিয়োগে সার্বিয়ান কোম্পানিগুলোর গভীর আগ্রহের কথা অবহিত করা হয়।

সার্বিয়ার জাতীয় কর্মসংস্থান সংস্থার তথ্যমতে, সম্প্রতি বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য ৩০টি ওয়ার্ক পারমিট ইস্যু করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ১৪ জন বাংলাদেশি কর্মী একটি জ্বালানি কোম্পানিতে যোগদানও করেছেন। রাষ্ট্রদূত সেই কোম্পানি পরিদর্শন করেন এবং সংস্থাটির শীর্ষ কর্মকর্তা ও কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। বাংলাদেশি কর্মীরা কোম্পানিতে কাজের পরিবেশ এবং কোম্পানির দেয়া সুযোগ-সুবিধার ব্যাপারে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন।

প্রবাসী শ্রমিকরা দেশের জন্য অগ্রনী ভূমিকা পালন করে থাকে। তারা দেশের অর্থনৈতিক চালিকাশক্তি। এরই সুবাধে বাংলাদেশ সরকার এই সকল প্রবাসীদের জন্য নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। এমনকি বাংলাদেশ সরকার প্রবাসীদের জন্য প্রদান করছে নানা ধরনের সুযোগ-সুবিধা।