সম্প্রতি তরুণ পরিচালক রফিক শিকদারের বিরুদ্ধে গায়ে হাত তোলা এবং কুটু কথা বালার অভিযোগ করেছিলেন বাংলা সিনেমার অন্যতম অভিনেতী সুচরিতা। তবে তার প্রকৃত নাম বেবী হেলেন। সিনেমা জগতে তিনি এ নামেই অধিক পরিচিত। এ পরিচালক রফিক শিকদারের বিরুদ্ধে সুচরিতা অভিযোগ করে বলেছিলেন, ’বসন্ত বিকেল’ সিনেমাটির শুটিংয়ের কথা বলে আমাকে সারাদিন বসিয়ে রেখেছিল, এরপর আমি তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে সে আমাকে কুটু কথা বলে, এবং এর পর্যায়ে আমার গায়ে হাত তোলে।
এদিকে ১৩ জানুয়ারি এ ঘটনার জেরে বৃহস্পতিবার বিকেলে এফডিসির পরিচালক সমিতির অফিসে আলোচনায় বসেন কার্য্য নির্বাহী কমিটির সদস্যরা। সেখানে সুচরিতার কাছে ক্ষমা চান পরিচালক রফিক শিকদার।

পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন বলেন, যিনি ছবির প্রযোজক তিনি নতুন। এটা তার প্রথম ছবি। শুটিংয়ে যদি এভাবে গণ্ডগোল হয় তাহলে ওই প্রযোজক নিরাশ হয়ে আর ছবি বানাবেন না। তাই দুপক্ষকে ডেকে মিমাংসা করে দিয়েছি। সুচরিতার মতো সিনিয়র শিল্পীর সাথে খারাপ আচরণ করায় পরিচালক রফিক শিকদার ক্ষমা চেয়েছেন।

পরিচালক সমিতির উপসচিব শাহীন সুমন বলেন, রফিক শিকদারের মায়ের সমতুল্য সুচরিতা। মা-ছেলের মধ্যে অনেক সময় মনোমালিন্য হয়। পরিচালক সমিতির সদস্যরা প্রত্যেকেই বিষয়টির সুষ্ঠ মিমাংসা করেছেন। রফিক শিকদার তার ভুলের জন্য সুচরিতার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। এখন তাদের মধ্যে আর কোনো ঝামেলা নেই।

মিমাংসা শেষে অভিনেত্রী সুচরিতা বলেন, ক্ষমা মহত্বের লক্ষণ। আমি রফিক শিকদারকে ক্ষমা করে দিয়েছি। তার বিরুদ্ধে আমার আর কোনো অভিযোগ নেই। ২৩ জানুয়ারি হজে যাবো। সেখান থেকে ফিরে ফেব্রুয়ারিতে ’বসন্ত বিকেল’ ছবির বাকি অংশের শুটিং করে দেব।

সুচরিতার সাথে অসদাচরণ করায় তার অভিযোগের ভিত্তিতে রফিক শিকদারের ’বসন্ত বিকেল’ ছবির শুটিংয়ে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে শিল্পী সমিতি। এ ব্যাপারে রফিক শিকদার বলেন, যেহেতু পরিচালক সমিতি আপোষের ব্যবস্থা করেছেন, তাদের হস্তক্ষেপে এই নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেওয়া হবে। এমন আশ্বাস পেয়েছি সমিতি থেকে।

তিনি বলেন, আমাদের মধ্যে এখন কোনো ঝামেলা নেই। আমি তাঁর সন্তান সমতুল্য। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দুজনে রাগের বসে দুজনকে কটু কথা বলেছি। এজন্য আমি ছেলে হয়ে তাঁর কাছে ক্ষমা চেয়েছি। উনিও মায়ের মতো আমাকে ক্ষমা করে দোয়া দিয়েছেন।

অন্যদিকে সুচরিতা জানান, আমাদের মধ্যে এখন কোনো ঝামেলা নেই। আমি ওকে ক্ষমা করে দিয়েছি। তার বিরুদ্ধে এখন আমার কোনোও অভিযোগ নাই। এ সময়ে ’বসন্ত বিকেল’ ছবির বাকি অংশের শুটিং করে দেব বলেও জানিয়েছেন সুচরিতা। এদিকে ক্ষমা চেয়ে পরিচালক রফিক বলেন, আমাকে মধ্যে যা হয়েছে, তা মা-ছেলের মতোই। তবুও ওআমি তার কাছে ক্ষমা চেয়েছি, সে আমাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন।