প্রেমিক শিনজিস বিকেনোভ হলেন- পেশায় একজন শিক্ষক। আর প্রেমিকা নাজারকে বেকজোনোভা হলেন- সদ্য পাস করা একজন ডাক্তার। এই প্রেমিক জুটি ঘর বাঁধতে চেয়েছিল। কিন্তু, তাদের মাঝে দেয়াল হয়ে দাঁড়ায় প্রেমিকার পরিবার।
পরিবারের বাধার কারণে এক পর্যায় গিয়ে ডাক্তার প্রেমিকা তার বাবা-মার কথা মতো শিক্ষক প্রেমিককে প্রত্যাখ্যান করে। এর পরেই এক ভয়ঙ্কর কাণ্ড করে বসে ঘাতক প্রেমিক।
ব্রিটিশ পত্রিকা ডেইলি মেইলের খবর অনুযায়ী, সম্প্রতি কাজাখস্তানের একটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করা জুনিয়র ডাক্তার নাজারকে বেকজোনোভাকে (২১) বিয়ের প্রস্তাব দেন শিক্ষক শিনজিস বিকেনোভ (২৬)। কিন্তু, প্রেমিকা তা প্রত্যাখ্যান করেন। কারণ ওই প্রেমিকার বাবা-মা চান না তিনি ওই শিক্ষককে বিয়ে করুক।
এ ঘটনার পর প্রচন্ড ক্ষুব্ধ হন প্রেমিক। ওই শিক্ষক প্রেমিক তার ডাক্তার প্রেমিকার দেহ থেকে মাথা আলাদা করে দেন। যখন ওই শিক্ষক হত্যাকাণ্ডটি ঘটান তখন প্রেমিকা তার নিজের একটি প্রাইভেটকারে ছিল। এ কারণে ঘটনাটি কেউ বুঝতে পারেনি।
এখানেই শেষ নয়, এরপর একটি নোট লিখে নিজের দেহে নিজেও ছুরি চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ওই প্রেমিক। কিন্তু, ঘটনাক্রমে বেঁচে যান শিনজিস বিকেনোভ।
বিডি২৪লাইভ