বলিউডের বহুল আলোচিত ও জনপ্রিয় অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম একজন গোবিন্দা। তিনি ৮০’র দশক থেকে বলিউড ইন্ডাষ্ট্রির সঙ্গে কাজ করছেন। এবং প্রায় ১৪০ টির বেশি হিন্দি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তার অভিনীত বেশ কয়েকটি দর্শক নন্দিত সিনেমা রয়েছে। তার ভাগ্নেও বিনোদন অঙ্গনে কাজ করছে। তবে তাদের মধ্যে পারিবারিক বিষয় নিয়ে বিরোধ রয়েছে। সম্প্রতি এই প্রসঙ্গে তুলে ভাগ্নেকে ঘিরে বেশ কিছু কথা বললেন গোবিন্দ পত্নী।
যিনি গোবিন্দ, তিনি আবার কৃষ্ণা। কিন্তু এক্ষেত্রে তা নয়! এখানে গোবিন্দ মামা আর কৃষ্ণা ভাগ্নে। বলা হয়, মামা-ভাগ্নে যেখানে আপদ নাই সেখানে। আবার মামা ও ভাগ্নের মধ্যে অল্পবিস্তর বিবাদ নতুন কোনও বিষয় নয়। তা হতেই পারে। তবে তাই বলে চিরতরে সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার ঘটনা সত্যিই দুঃখজনক। আর সেটাই ঘটলো বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে। বলিউড অভিনেতা গোবিন্দ এবং তার ভাগ্নে কৌতুক অভিনেতা কৃষ্ণা অভিষেকের সম্পর্কের বরফ যেন গলতেই চাইছে না। পারিবারিক বিবাদের জেরে পরস্পরের মধ্যে তাদের মুখ দেখাদেখি পর্যন্ত বন্ধ। এমন কি দিনকয়েক আগে ছোটপর্দায় ’দ্য কপিল শর্মা শো’-য়ে অতিথি হিসেবে গোবিন্দ এবং তার স্ত্রী সুনীতা আহুজার আসার খবর পেয়ে শো ছেড়েছিলেন কৃষ্ণা!

কোনোরকম ঝামেলা না বাড়িয়ে শোয়ের ওই নির্দিষ্ট এপিসোড থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন কৃষ্ণা। এই প্রসঙ্গে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে তাকে বলতে শোনা গেছিল, ’এটা কমেডি শো। কোন কথায় কী মনে করে ফেলবেন তারা। হয়ত সামান্য কথায় কোনও ব্যাপার আরও ঘোরালো হয়ে উঠবে। সবাই তারপর বলাবলি শুরু করবেন ও এই বলেছে, সেই বলেছে ইত্যাদি...তার থেকে দরকারটাই বা কী থাকার। সবদিক ভেবে তাই দেখলাম এই ভালো।’ এর পরপরই মুখ খোলেন গোবিন্দ পত্নী সুনীতা আহুজা। বললেন ’যখনই গোবিন্দ শো-তে আসেন তখনই কৃষ্ণা এমন কিছু বলেন যাতে তার পাবলিসিটি বেড়ে যায়। গতবছরও তিনি এমন কিছু বক্তব্য রেখেছিলেন যাতে গোবিন্দর ভীষণ অপমান হয়েছিল। অনেকেই বলেছিলেন, মানহানির মামলা দায়ের করুন। কিন্তু পরিবারের বিষয় বাইরে আনতে চাইনি, তবে এখন আর কোনো উপায় নেই। আর শো-তে কৃষ্ণা না থাকলেও তা হিট হবেই। মামার নাম ভাঙিয়েই খান কৃষ্ণা! নিজের নাম ভাঙিয়ে খাওয়ার কি কোনও যোগ্যতা তার নেই?’

ভাগ্নে কৃষ্ণার উদ্দেশে আরও ক্ষোভ উগরে দিয়ে গোবিন্দ পত্নী আরও বলেন, ’যতদিন বেঁচে থাকব ততদিন পর্যন্ত আমাদের মধ্যে এই সমস্যার কখনও সমাধান হবে না এবং আমি এই জীবনে আর তার মুখ দেখতে চাই না!’ এদিকে এতকিছুর পরেও ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে কৃষ্ণা জানালেন তিনি সত্যিই চান তাদের পরিবারের মধ্যে এইসব বিবাদ যেন দ্রুত শেষ হয়। আবার আগের মতো তারা যেন একজোট হয়ে যেতে পারেন। কৃষ্ণা বলেন, ’এতকিছুর পরেও আমি জানি যে ওরা মন থেকেই আমাকে ভালোবাসেন এবং আমিও বাসি। স্রষ্টা যেন এই সব সমস্যার সমাধান করে দেন এটাই প্রার্থনা।’

তারকা ব্যক্তিদের নিয়ে সাধারন মানুষের কৌতূহলির শেষ নেই। এরই ধারাবাহিকতায় প্রায় সময় তাদের নানা বিষয় দর্শক মাঝে উঠে আসে। সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে জনপ্রিয় অভিনেতা গোবিন্দা এবং তার ভাগ্নে কৃষ্ণার বিরোধের ঘটনা। এই বিরোধের জের ধরে তারা একে অন্যের মুখোমুখিও হননা।