রোববার বিমানের সৌদি আরবের জেদ্দাগামী একটি ফ্লাইটের বিলম্ব ও হয়রানির প্রসঙ্গে এক যাত্রীর দেয়া বক্তব্য ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। সাইফুল আমান নামের এক ব্যক্তি ভিডিওটি ফেসবুকে শেয়ার করেন। নির্ধারিত সময়ে ফ্লাইট না ছাড়া এবং মানসম্মত যাত্রীসেবা না দেয়ায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সকে বয়কট করার অনুরোধ জানিয়েছেন জেদ্দাগামী প্রবাসী যাত্রীরা।
ঐ যাত্রী ভিডিওতে বলেন, জেদ্দাগামী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটটি ছাড়ার কথা ছিল সন্ধ্যা ৬টায়। পরে ফোন করে তাকে একদফা সময় পরিবর্তনের কথা জানানো হয়। পরিবর্তীত সময় রাত ৮টায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে হাজির হয়ে তিনি দেখতে পান আরও সাড়ে চার ঘণ্টা বিলম্বের নোটিশ। পরে রাত সাড়ে ১১টায় যাত্রীদের অনবোর্ড করা হলেও শুরু হয় হট্টগোল। তিনি দাবি করেন, বিমানের ক্রুরা তার সঙ্গে খুবই খারাপ ব্যবহার করেছেন। এ বিষয়ে জানতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জনসংযোগ বিভাগের উপ-মহা ব্যবস্থাপক ও মুখপাত্র তাহেরা খন্দকারকে ফোন দেয়া হলে তিনি ফোন ধরেননি। ভিডিওতে অনেক যাত্রীকে চিৎকার করে বলতে শোনা যায়, আমরা রেমিট্যান্স যোদ্ধা, আমরা দেশের জন্য কাজ করি, মাথার ঘাম পায়ে ফেলে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে দেশে পাঠাই। আর আমাদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশের এই তামশা কেন? এই দুরবস্থার কথা জানিয়ে বিমান বাংলাদেশকে বয়কট করতে প্রবাসীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন যাত্রীর।