দেশে দীর্ঘ সময় ধরে মা/রা/ত্ম/ক ভাবে তান্ডব চালাচ্ছে কোভিড১৯ ভাইরাসের সং/ক্র/ম/ন। এই ভাইরাসের সং/ক্র/ম/ন প্রতিরোধের দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয় সরকার। এই তালিকায় রয়েছে দেশের সকল মাদ্রাসা গুলো। তবে আজ থেকে স্বাস্থবিধি মেনে দেশের সকক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালু করা হয়েছে। এমনকি দেশের সব কওমি মাদ্রাসা গুলো খুলে দেওয়া হয়েছে। এরই ভিত্তিতে সরকারকে ধন্যবাদ জানালো হেফাজতে ইসলাম।
দেশের সব কওমি মাদ্রাসাসহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ায় সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সংগঠনটির আমীর আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী ও মহাসচিব আল্লামা নুরুল ইসলাম এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, অবশেষে ১২ সেপ্টেম্বর থেকে দেশের সব কওমি মাদ্রাসাসহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। বিগত বেশ কয়েক মাস ধরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ সরকারের উচ্চপদস্থ দায়িত্বশীলদের কাছে আমরা বারবার মাদ্রাসা খুলে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের আশ্বস্ত করেছিলেন। আলহামদুলিল্লাহ সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার। এজন্য আমরা প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে হেফাজতে ইসলামের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই। আমরা আশা করি করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বিশেষ করে কওমি মাদ্রাসাগুলো সুন্দরভাবে তাদের দৈনন্দিন কাজ আনজাম দিয়ে যাবে। বিবৃতিতে হেফাজত আমীর ও মহাসচিব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট বিশেষ করে কওমি মাদ্রাসার দায়িত্বশীল ও ছাত্র-শিক্ষকদের প্রতি করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে পাঠদানসহ মাদ্রাসার দৈনন্দিন কাজ পরিচালনা করার জন্য আহ্বান জানান।

দীর্ঘ দিন ধরে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে শিক্ষা ব্যবস্থার। অবশ্যে শিক্ষা খাতের ক্ষতি নিরসনের জন্য নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করেছে বাংলাদেশ সরকার। এবং দায়িত্ব প্রাপ্ত ব্যক্তিদের নির্দেশনা দিয়েছেন সেই মোতাবেক কাজ করার জন্য।